• Categories

  • Archives

  • Join Bangladesh Army

    "Ever High Is My Head" Please click on the image

  • Join Bangladesh Navy

    "In War & Peace Invincible At Sea" Please click on the image

  • Join Bangladesh Air Force

    "The Sky of Bangladesh Will Be Kept Free" Please click on the image

  • Blog Stats

    • 315,676 hits
  • Get Email Updates

  • Like Our Facebook Page

  • Visitors Location

    Map
  • Hot Categories

When you say “I Love Allah”

When you say “I love Allah”, do you actually mean it? Do you fully understand the meaning of such love?  Do you know how to love Allah?

To know how to love God is very easy… Not everyone who says “I love Allah of course” sincerely does so. When you declare your love to Allah, then your actions should be in parallel with your words… Are they?

To sincerely love Allah, you must sincerely follow His messenger, for it is through Muhammad (PBUH) that we can learn how to love Allah. Allah told us Muslims that by following Muhammad (PBUH) we will be loved by Allah for seeking His love… (Al Imran)

So in order to fully love Allah, obeying His messenger is the golden key to unlock all doors towards salvation of the soul.

Obeying Allah is by obeying His messenger, since God ordered us to do so… How do we obey Muhammad (PBUH) if we neglect most of what ha had adivsed us to do, and then say that we do indeed love Allah? Obeying Muhammand (PBUH) is by doing what he had told us to do and avoiding what he prevented us from doing. This is following his “Sunnah”…

Prophet Muhammad is the only way to show us how Allah is pleased and what Allah likes. Through him, we can gain the ability to perform whatever is necessary to please Allah. Allah had given us the chance of knowing how to love Him through Muhammad (PBUH) who taught us in his daily life how to love Allah more than anyone or anything in this life.

Therefore, this is a continuous challenge, a struggle against the devil that tries by all means to disencourage us, to let us lose hope, to make us believe that it is a very hard thing to do, and to convince us that this obedience is a difficult task beyond our ability… Don’t let the devil disencourage you, or put you down… Be sure that Allah will always guide you to His path once you decide to walk that road towards Him…

To love Allah, to love His messenger is the true faith. In this concept, you can truly achieve the greatest happiness of the soul, which knows no boundaries at all… nothing can ever stand between you and this goal, because Allah Himself is guiding you and helping you… You make one step towards Allah,  He makes a lot more towards you… You change one little thing in yourself to please Allah, He will help you change more to gain His love… Further more, Allah will order his creatures, any kind of creatures to love you as well….

To truly love Allah, you need to get rid of any doubt that you are alone on this journey… Be patient and try tasting this little sweetness life can offer you and endure the little sadness it compells you to face… This struggle doesn’t mean at all that Allah is angry at you or does not love you… On the contrary, it does mean that Allah loves you and He chose you to see how much You love Him… How much are you willing to take and endure to pass the test of life with patience and by being satisfied with whatever Allah brings you and puts in your way.

After all, any pain we live, is a way of purification from sins… the slightest pain of a thorn in a finger is a way to erase sins… Imagine the more pain you face along your journey, the more sins are erased, the more faults are wiped off your page… We all make mistakes, we all commit things we can ‘t always be proud of, even between ourselves and our reflection in the mirror.. Allah knows everything done, the way you’ve felt while doing it and the circumstances while doing it… The point is not to be judged… but to see how can you make it up,…. will you wake up and discover that you should not just feel guilty about it but try to erase it… by the good deeds and going back to Allah, returning to His path and asking Him and only Him for forgiveness… You don’t need to tell anyone what you’ve done… Allah kept it a secret, why should you anounce it in public…. Allah will preserve the veil on your secret and simply forgive you, for you, slave, by asking Allah for forgivness, you acknowledge that there is indeed a God who punishes sinners and forgives them too, once they return to Him, with hands raised up to the sky asking for salvation and forgivness….Isn’t this to show how merciful He is…? Isn’t this a way to show us how easy it could be to be as pure as a baby without sins… once your forgiven…? This shows how Allah loves us….

To love Allah and through obeying His messenger (PBUH), you are following the correct path towards Jannah. Isn’t this what we all aspire… Paradise? Eternal paradise…? Don’t we all dream of its endless pleasure and joy?

It is costly to achieve… it is based upon patience and submitting to God’s will. To know how you truly love Allah you need to ask yourself a question everytime you do something:

Will Allah be pleased with this deed? Will this make Him happy with me? Will I make His messenger angry by doing it…?

Or you can simply ask yourself, if I meet Muhammad (PBUH) now, as I’m wearing this, doing that, saying that…. etc… will I be proud or ashamed..?

If you leave a prayer, will this please Allah? As long as you’re sure of the answer NO, then you know whether you are in this particular moment loving Allah the way you should or not.. Same concept in saying if I do my prayers on itme, will this make Allah pleased with my deeds? As long as your answer is YES, then be proud of loving Allah the way you should, the way He wants you to do so. This was a simple example of course there is a lot more than just the 5 prayers and the fasting and the dealing with people, and ….etc….it is always about deeds and hearts… along with the intentions for these deeds..

I believe that you should not fear what you say or do;  or say or do what you fear… Do what you can be facing the whole world while you’re doing it.. this only proves that you are brave enough to take responsibility for all your actions, and be confident that any deed you actually make is done for Allah’s satisfaction… and of course for loving it… don’t you lose this feeling of loving what you do while doing it… then and only then, you will have a cost for everything you do… nothing will be done for free,……. Yes.. the cost is little things in Paradise with each word, each gesture, each whisper, what you do alone or with people, anything will have a price… one minute can simply give you thousands of golden trees in Jannah without you being aware of it… one little deed, that you didn’t notice could be a great deal after life…

So when you say “I love Allah” be sure you sincerely mean it the way you are supposed to love Him.

Source:

https://i1.wp.com/www.faithofmuslims.com/blog/wp-content/uploads/2011/07/fantasy_banner.jpg

 

কুখ্যাত সাব্রা-শাতিলা গনহত্যা………

১৯৮২ সালের ১৬,১৭ ও ১৮ অক্টোবর……
লেবাননের বৈরুতে অবস্থিত ফিলিস্তিনিদের আশ্রয়কেন্দ্র সাব্রা শাতিলা রিফিউজি ক্যাম্পে চালানো হয় শতাব্দীর অন্যতম ভয়াবহ হত্যাকাণ্ড। ইসরাইলী বাহিনীর প্রত্যক্ষ মদদে উগ্র খ্রিস্টবাদী লেবানীজ ফোর্স মিলিশিয়া ভয়াবহ এই হত্যাকাণ্ড পরিচালিত করে। তিনদিন ব্যাপী চালানো এই হত্যাকাণ্ডে প্রায় ৩৫০০ নিরীহ ফিলিস্তিনী নিহত হয়। নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের বীভৎসতার কিছু চিত্র………

আচ্ছা আমরা কী আমাদের ফিলিস্তিনী মজলুম ভাই বোনদের কথা একটিবারও মনে করি???
তাদের জন্য কি একটিবারও দুআ করি???

কিয়ামাতের দিন যখন ফিলিস্তিনী শিশুটি মুসলিম উম্মাহর অকর্মণ্য সদস্য হিসেবে আমাদের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তুলবে তখন আল্লাহর কাছে কি জবাব দিব????

হে আল্লাহ্‌! আপনি আমাদের ক্ষমা করুন। আমাদের অসহায় ভাইদের আপনি রক্ষা করুন। মুসলিম উম্মাহর একজন সদস্য হিসেবে নিজ অবস্থান থেকে যতটুকু সম্ভব ইসলামের খেদমত করার তাওফিক দান করুন। সর্বোপরি এই পৃথিবীতে ইসলামী খিলাফাত প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে আপনার শত্রুদের দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়ার তাওফিক দান করুন………

‘Indeed the Imam (Khalifah) is a shield, from behind whom one would fight, and by whom one would protect oneself.’ (Muslim narrated from Al-Araj on the authority of Abu Hurairah).”

 

Source : https://i0.wp.com/sonarbangladesh.com/blog/images/sbblogheader_sako.jpg

বিশ্বকাপ উদ্বোধনের দিন জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে নামাযের আযানে মাইক বন্ধ রাখা হয়েছিল

আযান বন্ধ করে ১৫ কোটি মানুষের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা হয়েছে – মীর্যা সিকান্দার

সরকার বিশ্বকাপ উদ্বোধনের দিন জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে আসর, মাগরীব, এশা এই তিন ওয়াক্ত নামাযের আযানে মাইক বন্ধ রাখে। যাতে আযানের আওয়াজ খেলা উদ্বোধনের কর্মসূচিকে ব্যাহত না করে। বহু মুসল্লী যথারীতি জামায়াত ধরতে না পেরে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, ডিজিটাল সরকারের কাছে নামাযের চেয়ে খেলার গুরুত্বই বেশি। অথচ সরকারের উচিত ছিল নামাযের সময়গুলোতে খেলা উদ্বোধন বিরত রাখা। সরকার তা না করে উদ্বোধনের সময় আযান বন্ধ রেখেছে। এতে ১৫ কোটি তাওহিদী জনতার ধর্মীয় অনুভূতিতে দারুণভাবে আঘাত লেগেছে। ফলে সরকার দেশবাসীর কাছে ঘৃণিত ও নিন্দিত হয়েছে।

প্রত্যেক নামাযের জামায়াতের পূর্বে আযান অনিবার্য শর্ত। আযান মামুলী ধরনের কোন বিষয় নয়। আযানের মাধ্যমে দিনে পাঁচবার বুলন্দ আওয়াজে আল্লাহতায়ালাকে ইলাহ এবং মুহাম্মদ (সাঃ)কে রসূল হিসেবে স্বীকৃতি দান, আল্লাহর বড়ত্ব ও মহত্ত্ব ঘোষণা এবং মুসলিম উম্মাহকে নামায তথা কল্যাণের দিকে আহবান করা হয়। বাস্তবিকপক্ষে নামাযে দুনিয়া ও আখিরাতের জন্য প্রকৃত কল্যাণ রয়েছে। আর খেলায় একটু চিত্তবিনোদন, এতে হয় প্রচুর অর্থ ও সময়ের অপচয়।

আল্লাহ ও রসূল (সাঃ) এর পক্ষ থেকেই দুনিয়াব্যাপী আযানের ব্যবস্থা চালু রয়েছে। এ ব্যবস্থার ওপরে হস্তক্ষেপ করা সরাসরি আল্লাহ ও রসূলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার সামিল। যুগে যুগে যারাই আল্লাহ ও রসূলের বিরুদ্ধে নেমেছে ইতিহাস সাক্ষী আল্লাহপাক তাদের নাস্তানাবুদ করে ছেড়েছেন। তারা আল্লাহর কোন ক্ষতিই করতে পারেনি। তিনি সর্বশ্রোতা, সর্বদ্রষ্টা, সর্বজ্ঞ ও সর্বশক্তিমান।

আমাদের দেশের বর্তমান সরকারে অনেক নাস্তিক রয়েছে। আযান তাদের ভোরের মধুর ঘুমে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে। সে কারণে আযানের প্রতি তাদের দারুণ আক্রোশ। আল্লাহর ঐ সকল দুশমনেরা আযান বন্ধ রাখার ব্যাপারে ভূমিকা রাখবে সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আমার জানামতে সরকার প্রধান একজন ভাল নামাযী। তিনি নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন। প্রতিদিন ফজর নামায বাদে কুরআন তিলাওয়াত না করে নাকি অন্যকাজে হাত দেন না। পোশাক পরিচ্ছদেও অনেকটা শালীন। তিনি আল্লাহর পবিত্র ঘরকে কয়েকবার তাওয়াফ করে এসেছেন। তিনি খেলার জন্য আযান বন্ধের হুকুম দেবেন একথা ভাবতেও কষ্ট হয়। কিন্তু না ভেবেও উপায় অন্তর দেখি না। কারণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ছাড়া জাতীয় মসজিদে তিন ওয়াক্ত আযান বন্ধ রাখবে এমন বুকের পাটা কার আছে? আর যদি তার অগোচরেই এরকম ধৃষ্টতা দেখানো হয়ে থাকে তাহলে প্রধানমন্ত্রীর উচিত অনতিবিলম্বে ঐ সকল আল্লাহর দুশমনদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিদান এবং জাতির কাছে করজোড়ে ক্ষমা চাওয়ার ব্যবস্থা করা। নইলে আরেকটি গণবিক্ষোভ দানা বেঁধে উঠতে পারে। যা সরকারের জন্য সুখপ্রদ হবে না।

সচেতন মুসল্লীরা বলেছেন, এই সরকার এ দেশ থেকে ইসলামকে নির্মূল করে ধর্মনিরপেক্ষতাবাদ কায়েম করার জন্য ইতোমধ্যে বেশকটি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আযান বন্ধ রাখা তারই একটি অংশমাত্র। বাংলাদেশ পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম মুসলিম দেশ। এখানে প্রায় ৯০% মুসলমান বাস করেন। ধর্মীয় অনুশীলনে কারো কারো কিছু ঘাটতি থাকলেও ধর্মীয় সেন্টিমেন্ট তাদের অত্যন্ত দৃঢ়। তাই এদেশ থেকে ইসলাম নির্মূল করে ধর্মনিরপেক্ষতাবাদ কায়েম করার ব্যাপারে যারা আদাপানি খেয়ে নেমেছেন তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন। ইসলাম বিরোধী দু’একটা কাজ করে তেমন বাধার সম্মুখীন হয়নি বলে তাদের এ ভাবা ঠিক হবে না যে তারা বিজয়ের দ্বার প্রান্তে পৌঁছে গেছে। বরং দিন যত যাচ্ছে দেশব্যাপী ইসলাম বিদ্বেষীদের ব্যাপারে ততবেশি সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করেছে। এই ঝড় যখন সম্মিলিত গতিলাভ করবে তখন ধর্মনিরপেক্ষবাদীদের আশ্রয়স্থল খুঁজে পাওয়া কঠিন হয়ে পড়বে। তাদের মনে রাখতে হবে এ শতাব্দী ইসলামের শতাব্দী বলে খ্যাত। আজ আমার মনে পড়ছে সেই সকল ধর্মীয় অনুভূতিওয়ালাদের কথা। যারা শিবিরের মহানগরীর সীরাত (সা.) মাহফিলে মাওলানা রফিকুল ইসলাম খানের বক্তব্যে দারুণভাবে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত পেয়েছিলেন। জনাব খান তার বক্তব্যে বলেন যে, আল্লাহর দ্বীন কায়েম করতে গিয়ে রাসূল (সা.) নানাভাবে নির্যাতিত হয়েছিলেন। আজও যারা দ্বীন কায়েমের কর্মসূচি নিয়ে ময়দানে নামবেন তাদের ওপরেও তেমনি নির্যাতন নেমে আসবে। নিজামী সাহেব ও মুজাহিদ সাহেব সে কারণেই আজ নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এতে নাকি নিজামী সাহেব ও মুজাহিদ সাহেবকে রসূল (সা.) এর সাথে তুলনা করাও হয়েছে। মামলা করার কথা যিনি বক্তব্য রেখেছেন সেই মাওলানা রফিকুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে, কিন্তু তারা তা না করে মামলা করল নিজামী সাহেব ও মুজাহিদ সাহেবের বিরুদ্ধে। বিজ্ঞ আদালত সে মামলা গ্রহণ করে তাদেরকে জেলেও ঢুকিয়ে দিলো। উদোর পিন্ডি বুধোর ঘাড়ে আর কাকে বলে।

আজ ইমাম প্রশিক্ষণে যুবক যুবতীদের নাচ দেখানো হচ্ছে। খেলার জন্য আযান বন্ধ রাখা হচ্ছে। তাদের ধর্মীয় অনুভূতিতে এখন কোন আঘাত লাগছে না কেন?

দুনিয়ার জীবন অতি সংক্ষিপ্ত। আখিরাতের জীবনের কোন শেষ নেই। দুনিয়ার সামান্য স্বার্থে আখিরাতকে বিক্রি করা কোন মতেই ঠিক নয়।

Source : Daily Sangram

The Meaning of Amazing Marks on Your Hands

https://i0.wp.com/www.islamcan.com/miracles/images/handlines.jpg

Islamic Video Song : This Is Islam….

People of the world……..Do you know what is the truth about Islam ? It’s all about peace, love, family & praying to one God……..It doesn’t teach terrorism. And this is the truth about Islam.

US Policies Only Conducive to Israel

By Kamal Khan

Al-Jazeerah, CCUN, 2011

USA and its foreign Policies have “NEVER” been conducive to anyone but only ISRAEL, the one country that pulls all the strings in the UK, USA, most European nations, Australia , New Zealand, and Japan. Organizations such as the World Bank, IMF, ADB, UN, WHO, Amnesty International, Green Peace, Human Rights, NGO’s, Agencies Like US Aid, Free Mason Clubs, like Lions Club, Rotary Club, Jaycies, etc etc. “ALL” are used as a network working in favour of Zionist Jews Worldwide, Particularly in Israel, USA, and UK.

What I am saying is “Common Knowledge” to the Very few Experienced/Mature/Savvy people who Know the inner/darker secrets. ONLY VERY FEW people know what is happening. Now Let’s get back to USA and mistrust for US & Western countries/Agencies. The past few decades have always shown and time has proven it that policies have always been “AGAINST” MUSLIM communities/countries. Be it Iraq-Iran War of the past when Saddam Hussain was USA’s hero .

Be it Afghanistan-USSR War of the past, when Osama Bin Laden was USA’s hero . Be it Lockerbie bombing- Pan Am Flight 103 where Libya was Blamed. Be it September 11th , 2001, where out of the blue organizations never heard or before suddenly were born (AL Qaeda & Taliban) . Be it Iraq being Blamed for these and weapons of mass destruction “Excuse” used. Be it Osama Bin Laden who suddenly went from Hero to Zero (Villain). Be it Pakistan who has suffered over US$ 70 Billion Financial Loss for “USA’s war or Terror” it is not Pakistan’s whatever Obama or Biden or whoever says.

This was forced upon Pakistan by USA and Everyone knows it (Give us some credit for having some brains and not all being totally Morons). Be it GITMO & most prisoners are Muslim.  Be it Dr. Aafia Siddiqui. Be it Setting up bases in Whole of Middle East for the Protection of Israel. Be it Setting up of Bases and causing Internal unrest in Pakistan using Funds to promote internal crises & chaos. Be it Kashmir .

Be it Israeli bases in Turkey & India. One factor that everyone ignores despite all the well oiled Planning & Execution by USA, UK, The West & The Jews some spanner in the machinery always props up. The Future direction seen by the West  (USA, UK, Europe, Jews etc ) is completely different to what is happening albeit slowly. Let me spell it out for you  plainly which very very few People Know.

There is a GOD and all plans will always be screwed because everyone is deviating away from Religion. Over & Over again time has proven that. ALL things, signs  narrated by our Prophet Muhammad (PBUH) have come true and the end result is near.

Call it World War III. Call it Armageddon . Call  it Fate . Call it what you will.  The Signs told 1432 Years Back have come true and time being relative (I hazard a Guess of Maximum 30-40 Years). This is when ALL ALLIED forces will lose World War III which will take place close to Jerusalem. History has proven that a few have vanquished Many.

The latest being  a handful of Hezbollah Defeating Israeli Army and UN had to be called in (Anyways that was Only a Test many More to come within that 30-40 years time frame) . So getting back to Lousy Foreign Policy and also Lousy Planning a Mechanism is now put into place which is Irreversible  and uncontrollable by anyone,  The End  maturing in 30-40 years with World War III/Armageddon.

Plan away. Do whatever Result is clear & guaranteed. Unfortunately People have so moved away from Religion that this has been always foretold by The Torah(Which Has been changed) By The Bible (Which Has been Changed) By The Holy Quran (Intact as given). Very Few will believe and they will be the victors. All you have to read up & Understand The Holy Quran. What was given 1432 years back is coming true and has been proven by the scientists also(So many things).

So what is there not to believe in the coming about or World War III/Armageddon and Guess who will Lose :)) …… It is all written and we are just actors in a play with the curtain going to go up on the “TRUE MUSLIMS” (of which very few will be left), for the rest it will be curtains . IF you want Facts just look at your own selves.  Can you control your death ? Life ? Time? Weather ? . 30-40 Years is all  we have left according to my time Schedule. Your Children and your Descendants have only up to 2040-2050.

It is ALL written and Proven and Foretold. Even knowing this many have turned away from Religion as the Worldly pleasures have proved overpowering. USA is facing internal strife on 2 fronts Economy & seceding by some states (4 States have already Started the process). I guess The Economy will become so bad within the next Few years (ALL Factors Proven Debts of Over US$ 16 Trillion reserves of US$ 283 Billion ONLY) that USA will default in its commitments.

For the Jewish Investors Only Euro & Europe is left for any returns otherwise most companies/Organizations will be bankrupt like the US Government. Real Estate and Gold are two assets that now for the next 10 years will not give any returns and in fact will give only Capital Losses. Israel will be facing extermination from 3 sides despite all  planning. it was better that future Place for the Jewish nation would  be an Island in Mediterranean or Bahamas or Far East near FIJI/BALI.  Maldives , Mauritius, Ibiza etc .

They would be Secure, build up and economy a nation with NO Threats and great environment and beaches. People Plan and then God Plans . God’s Plan Always wins . Look at the Fires, The Flooding, Tsunami, Hurricanes, cyclones, storms etc etc Then there are BP’s , Natural Disasters , etc etc.

There will be someone who will defeat the Evil designs.

%d bloggers like this: