• Categories

  • Archives

  • Join Bangladesh Army

    "Ever High Is My Head" Please click on the image

  • Join Bangladesh Navy

    "In War & Peace Invincible At Sea" Please click on the image

  • Join Bangladesh Air Force

    "The Sky of Bangladesh Will Be Kept Free" Please click on the image

  • Blog Stats

    • 315,721 hits
  • Get Email Updates

  • Like Our Facebook Page

  • Visitors Location

    Map
  • Hot Categories

অবৈধ আয় হারাবে বলে পুলিশ র‍্যাবে আসতে চায় না: বারী

https://i2.wp.com/www.bdreport24.com/wp-content/uploads/2010/12/wikileaksEditB201012041557132.jpg

আড়াই লাখ মার্কিন তারবার্তা ফাঁস করেছে উইকিলিকস। মার্কিন কূটনীতিকদের ভাষ্যে এসব তারবার্তায় বেরিয়ে এসেছে বাংলাদেশের রাজনীতি ও ক্ষমতার অন্দরমহলও

সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআইয়ের সাবেক কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল চৌধুরী ফজলুল বারী বলেছিলেন, ঘুষসহ অন্যান্য আয়ের সুযোগ কমে যাবে বলে পুলিশ থেকে র‍্যাব বাহিনীতে আসার আগ্রহ কম।

[prabasher_news_06102009_0000001_gen_bari.png]

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল চৌধুরী ফজলুল বারী

২০০৬ সালে ডিজিএফআইএর কাউন্টার ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর পরিচালক হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে এক সম্মেলনে যোগদানের সময় মার্কিন এক কর্মকর্তাকে এ কথা বলেছিলেন ব্রিগেডিয়ার বারী। উইকিলিকসের ফাঁস করা মার্কিন দূতাবাসের কূটনৈতিক তারবার্তায় এ কথা বলা হয়েছে। ফাঁস হওয়া ওই তারবার্তার ভাষ্য অনুযায়ী, ২০০৬ সালের এপ্রিলে হাওয়াইতে অনুষ্ঠিত পিএএসওসি সম্মেলন চলার সময় মূল অনুষ্ঠানের বাইরে সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী দূতাবাস কর্মকর্তার সঙ্গে বারীর খোলামেলা কথাবার্তা হয়। বারী এ সময় র‍্যাব গঠনের সময় থেকে এ বাহিনীর বিষয়ে তাঁর বিভিন্ন অভিজ্ঞতা ও জঙ্গিগোষ্ঠী জেএমবির তৎপরতা নিয়ে কথা বলেন। প্রসঙ্গত, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল বারী একসময় র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) উপপ্রধান ছিলেন।

তারবার্তার তথ্যমতে, মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তার সঙ্গে আলোচনায় বারী উল্লেখ করেন, র‍্যাব গঠনের প্রাথমিক পরিকল্পনার সময় তিনিও উপস্থিত ছিলেন। প্রাথমিক পরিকল্পনা ছিল র‍্যাব সামরিক বাহিনী থেকে ৪৪ শতাংশ, পুলিশ বাহিনী থেকে ৪৪ শতাংশ ও বাংলাদেশ রাইফেলস (বিডিআর) থেকে ১২ শতাংশ জনবল নেওয়া হবে। কিন্তু পুলিশ বাহিনীতে এই কোটা পূরণে অনীহা ছিল। কারণ, ঘুষ ও অন্যান্য অবৈধ কার্যকলাপের মাধ্যমে তারা ‘বাইরে থেকে আরও বেশি অর্থ আয় করে’। বারী দাবি করেন, জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তারা তাঁদের দপ্তরে বসে থাকতেই বেশি আগ্রহী।

https://i2.wp.com/media.somewhereinblog.net/images/sammobadiblog_1260524740_1-rab.jpg

র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব)

বারী বলেন, পুলিশ বাহিনী একটি ‘বিশাল পিরামিড স্কিমের’ মতো কাজ করে, যাতে মাঠপর্যায়ের কর্মীরা অবৈধভাবে উপার্জিত অর্থ ঊর্ধ্বতন পর্যায়ে পৌঁছে দেন। জেএমবির প্রধান শায়খ আবদুর রহমানকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশের ব্যর্থ হওয়ার একটি কারণ দুর্নীতি বলে মন্তব্য করেন তিনি। বারী অভিযোগ করেন, র‍্যাবে অনেক সময় পুলিশের এমন জনবল দেওয়া হয়, যাঁদের সঠিকভাবে গুলি চালানোর মতো মৌলিক দক্ষতাও নেই। বিশেষ অভিযানের জন্য তাঁদের নেই কোনো প্রশিক্ষণ। অনেকে শারীরিকভাবেও উপযুক্ত নন।

https://i1.wp.com/www.sonarbangladesh.com/blog/uploads/Tirzok201107231311415065_nnb2195147.jpg

বাংলাদেশ পুলিশ

তারবার্তায় আরও বলা হয়, এর আগে ২০০৫ সালের জুন মাসে মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বারী বলেছিলেন, ক্রসফায়ার ‘দরকারি এবং স্বল্প মেয়াদে উপযোগী এক কৌশল’। তারবার্তায় বলা হয়, বারী জানান, তিনি ডিজিএফআইয়ের কর্মকর্তা হিসেবে জেএমবির নেতা শায়খ আবদুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় অনেকবার উপস্থিত ছিলেন। তিনি জেএমবি প্রসঙ্গে মার্কিন কর্মকর্তাকে বলেন, এর নেতা শায়খ আবদুর রহমান পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের কাছে বিস্ফোরক তৈরি এবং একে ৪৭ রাইফেল চালনার প্রশিক্ষণ নেন। আইএসআই শায়খ রহমানকে কাশ্মীরে ব্যবহার করতে চেয়েছিল।

https://i1.wp.com/samakal.com.bd/admin/news_images/676/image_676_152160.jpg

বারী জানান, জিজ্ঞাসাবাদে শায়খ রহমান ১৭ আগস্ট দেশব্যাপী বোমা হামলা প্রসঙ্গে বলেন, ‘পটকাবাজির বিরুদ্ধে কোনো আইন নেই। এসব বোমার ভেতরে কোনো স্প্লিন্টার ছিল না, কীভাবে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনবেন?’ তারবার্তায় বলা হয়, শায়খ রহমানের এই যুক্তিতে সহানুভূতি প্রকাশ করে বারী মার্কিন কর্মকর্তাকে বলেন, বিস্ফোরণের আঘাতে নয়, ওই দিন আতঙ্কিত হয়ে দুজন নিহত হয়।

বারী আরও বলেন, দেশব্যাপী বোমা হামলার ঘটনায় ৭০ জনকে গ্রেপ্তার করা হলে জেএমবির নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়। এর জবাব দেওয়ার জন্য প্রচণ্ড চাপ আসে শায়খ রহমানের ওপর। এর পরিপ্রেক্ষিতেই অক্টোবরে আদালতে হামলা চালায় জেএমবি।

পুলিশের বিষয়ে ব্রিগেডিয়ার বারীর কথিত এই অভিযোগের ব্যাপারে গতকাল পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজি) হাসান মাহমুদ খন্দকারের বক্তব্য জানতে চাওয়া হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান।

সূত্রঃ

https://i2.wp.com/www.prothom-alo.com/secured/theme/public/newdesign/style/images/prothom-alo-logo.jpg

Britain complicit in extreme torture

Source : PressTV

British authorities have collaborated with Bangladeshi security forces to hunt British nationals and interrogate them outside the country in secret bases where inmates are known to have died under torture.

Guardian quoted sources in both countries as saying London used Bangladeshi intelligence agencies and police forces to cross-examine suspects with dual British-Bangladeshi nationality in operations during which a number of detainees became victims of extreme forms of abuse.

In one of the meetings between British and Bangladeshi officials, former Home Secretary Jacqui Smith met officials of Bangladeshi Directorate-General of Forces Intelligence (DGFI) which was criticized for its human rights record by the Human Rights Watch just about two months earlier.

According to a DGFI officer, Smith, whose department had earlier reported prevalent torture in Bangladesh, privately called on the agency, during the meeting, to examine the case of several people whom she described as suspicious.

Reports said a number of British suspects became subject to torture in the secret interrogation center known as the Task Force for Interrogation cell (TFI).

The inmates reported horrific torture methods including being forced to stand still for six days with their hands chained to bars above their heads, receiving electric shocks and even being strapped to a chair while a drill was slowly driven into their bodies.

This is while Smith’s own department had mentioned the very torture methods used on the victims as commonplace practice by the DGFI.

MI-6

MI-5

Reports claimed of MI6 and MI5’s complicity in the interrogation and torture cases sanctioned by senior government officials including Smith, former foreign secretary David Miliband and former Home Secretary Alan Johnson.

RAB

This comes as earlier WikiLeaks cables revealed the British government trained the Bangladeshi rapid action Battalion (RAB), also involved in the torture cases.

RAB, which were described as a “death squad” by the Human Rights Watch, were blamed for hundreds of extra-judicial killings and human rights violation cases before receiving training by Britain.

AMR/HE

%d bloggers like this: