• Categories

  • Archives

  • Join Bangladesh Army

    "Ever High Is My Head" Please click on the image

  • Join Bangladesh Navy

    "In War & Peace Invincible At Sea" Please click on the image

  • Join Bangladesh Air Force

    "The Sky of Bangladesh Will Be Kept Free" Please click on the image

  • Blog Stats

    • 277,638 hits
  • Get Email Updates

  • Like Our Facebook Page

  • Visitors Location

    Map
  • Hot Categories

তোদের ঘিন্না করি, তোদের থুতু দেই

Source : Facebook

By Mahmud Faisal

আমি বিশেষ কিছু বলবো না। একটা প্রশ্ন জাগে মনে– বাংলাদেশের বিশ্বকাপ আয়োজনের বিভিন্ন দ্বায়িত্বের মানুষগুলা কী নপুংসক? এদের গালাগাল করলেও মনে হয় দুঃখ-ক্ষোভ মিটবে না। ইতর, বিটকেল, শয়তান, গাদ্দার। বাংলাদেশ তোদের জন্ম দিয়েই কলংকিত।

আমরা এস, এ গেমস আয়োজন করতে পারি এত সুন্দর করে নিজেরাই। একবার যদি বিশ্বকাপের জন্য উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সুযোগ পেলাম, তবে সেইটা এইভাবে নতজানু হয়ে আরেকটা দেশের কাছে দিয়ে দিতে হবে?আমার দেশের সংস্কৃতির এমন কী স্বল্পতা ছিলো যে আমার দেশের খরচে করতে হবে বলিউডি নায়ক-নায়িকাদের নৃত্যের আয়োজন? আশ্চর্য!!

নিচের ব্লগ পোস্ট দুইটা পড়লাম আজই। কিছু বলার মতন শব্দ আমার জানা নাই। লেখা দুটো তুলে দিলাম, সেই সাথে ব্লগের লিঙ্কটাগুলোও দিলাম। আমি বিশ্বাস করতে চাই খবরটা সত্য না!😦

—————————————–

সূত্রঃ

শিরোনামঃ  জাতি হিসেবে আমরা কি হিজড়া হয়ে গেলাম?.. লজ্জিত.. স্তম্ভিত.. ক্ষুদ্ধ…..

সামহোয়্যার ইন ব্লগ থেকে…  এখানে লিঙ্ক

এবারের ২০১১ এর ক্রিকেট বিশ্বকাপের যৌথ আয়োজক হবার গৌরব অর্জন করে বাংলাদেশ এটা সবাই জানে এবং সে অনুযায়ী বাংলাদেশ খেলা আয়োজনের জন্য প্রায় সব প্রস্তুতিও সম্পুর্ন করেছে। যৌথ আয়োজক হিসেবে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের দায়িত্ব বাংলাদেশের কাঁধে পড়েছে আর সমাপনী হবে ভারতে। বর্তমানে খেলাধুলার বিশ্ব আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানগুলোতে আমরা বিভিন্ন দেশকে তাদের ঐতিহ্যবাহী কৃষ্টি কালচার এবং নিজস্ব সংস্কৃতিকে তুলে ধরার আপ্রান চেষ্ট্রা চালাতে দেখেছি। যার সর্বো উৎকৃষ্ট প্রমান আমরা সাম্প্রতিক বেয়জিং অলম্পিক এবং ভারতের কমনওয়েলথ এর উদ্ভোধনীতে দেখতে পেয়েছিলাম।

যাহোক আসল কথায় আসি। গত কিছুদিন আগে ভারতীয় স্টার শাহরুখের বাংলা আগমন এবং বাংলাদেশকে দেয়া তার থাপ্পড় ভুলতে না ভুলতে ভুলতে এবার আবার বিশ্বকাপের উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে পারফর্ম করতে আসছে বিশাল ভারতীয় মিডিয়া বহর। প্রসংগত সবার জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি এবারের বিশ্বকাপ উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য বিসিবি যৌথভাবে মাহফুজুর রহমানের অভিরাম ইভার মুখ ক্ষ্যাত স্যাটেলাইট চ্যানেল এটিএন বাংলার অঙ্গপ্রতিষ্ঠান এটিএন ইভেন্টস আর ভারতীয় কোম্পানি উইজক্রাফটকে যৌথভাবে দায়িত্ব দিয়েছে। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের দিন হলেও এই দুই কোম্পানী মিলে ভারতীয় সংস্কৃতি প্রচারের জন্য আরো দুদিন মিলিয়ে মোট তিন দিনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে। এর মধ্য ১৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছাড়াও ১৬ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় শিল্পীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে কনসার্ট আয়োজনের শিডিউল ঠিক করে ফেলেছে এই দুই ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানী।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল দায়িত্ব পালনকারী ভারতীয় কোম্পানি উইজক্রাফট ও দেশীয় এটিএন ইভেন্টস ভারতীয় ফিল্মের তারকা আর সেরা গায়ক-গায়িকাদের নিয়েই অনুষ্ঠানসুচী প্রায় চুড়ান্ত করে এনেছে। এরই অংশ হিসেবে এটিএন ইভেন্টসের চেয়ারম্যান ড.!! মাহফুজুর রহমান ভারত সফর করে গতকাল দেশে এসেছেন। জানাযায় সফরকালে তিনি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য ভারতীয় ফিল্মের মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন, জয়া বচ্চন, অভিষেক বচ্চন আর ঐশ্বরিয়াকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন এবং সে সুত্রে বচ্চন পরিবার আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান করতে ঢাকা পৌঁছবে। এছাড়া আমন্ত্রিত বলিউড সুপারস্টার সালমান খান, বিপাশা বসু, সাইফ আলী খান, অক্ষয় কুমার, গোবিন্দ, প্রিয়াংকা চোপড়া, সনুনিগাম ও রাহাত ফতেহ আলী খানসহ ৫৮ জনের বিশাল বহর ১৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা পৌঁছবে।

শাহরুখের অনুষ্ঠানের মত এখানেও পরিকল্পনা মাফিক আমাদের শিল্পী এবং আমরা দর্শকের ভুমিকায় থাকতে হবে আপাতত এখন পযন্ত ঘটনাপ্রবাহে তাই মনে হচ্ছে। তবে স্থানীয় আয়োজকদের অনেক রিকুয়েস্টের পর তারা বাংলাদেশ তথা উপমহাদেশের কিংবদন্তী শিল্পী রুনা লায়লা এবং আরেক গর্ব সাবিনা ইয়াসমিনকে রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে!!!

অথচ এই আমরা বাংলাদেশীরা একমাত্র ভাষাসহ নিজস্ব সংস্কৃতিকে বিশ্বের বুকে তুলে ধরার জন্য রক্ত জরিয়েছি বারবার। করিনি কখনো কোন শক্তির কাছে আপোস। অথচ আমরাই আজ করুনার পাত্র!! আমরা কি সংস্কৃতিকভাবে এ্তই দুর্বল? মোটেও নয়..আমাদের আছে বাউল গান, জারি, সারি, ভাওয়াইয়া, ভাটিয়ালি, মুর্শিদী, গম্ভীরা, কবিগান সহ কত রকমের বিচিত্র সব গানের সমৃদ্ধ সমাহার। নৃত্যেও কি আমরা পিছিয়ে আছি…না আমাদের সেখানে আছে উপজাতীয় নৃত্য, লোকজ নৃত্য, শাস্ত্রীয় নৃত্য ইত্যাদির চমৎকার সব উপাদান। আর সেজন্য বাংলা যুগে যুগে জন্ম দিয়েছে বিখ্যাত সব সংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্বকে। সেই লালন-রবীন্দ্র-নজরুল থেকে শুরু করে সুকান্ত-বঙ্কিম-আব্দুল আলিম-আব্বাস উদ্দিন-ফররুখ আহমেদ-রুনা লায়লা-সাবিনা ইয়াসমিন-আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল সহ আরো কত কত নাম।

আমাদের শিল্পীদের জাগরনের গানে আমরাইতো জেগে উঠেছিলাম ৭১ এ। তবে কেন আজ আমরা আমাদের স্বকীয়তা হারিয়ে ভারতের কাছে সব বিলিয়ে দিচ্ছি। আমাদের স্বকীয়তা থাকবে কোথায় যদি না আমরা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমাদের সংস্কৃতি তুলে ধরতে না পারি? আমাদের সংস্কৃতি বিশ্ব পরিমন্ডলে তুলে ধরার এমন বিশাল সুযোগ আমরা এভাবে হাতছাড়া করলে জাতি হিসাবে আমরা আমাদের মুক্তিযোদ্ধা আর সেই মহান ভাষাসৈনিকদের কি জবাব দিব। আর নতুন প্রন্মমই বা কিভাবে তাদের সংস্কৃতিকে ভাববাসতে শিখবে?

বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে রক্ষা করতে হবে। সংস্কৃতিক আগ্রাসনই একটি জাতির অধ:পতনের অন্যতম নিয়ামক। সুতারাং বিজয়ের ৪০ তম বছরের এই শুভক্ষনে বিজাতীয় সংস্কৃতিকর এই আগ্রাসন মোকাবেলায় তরুনপ্রজন্মকে দীপ্ত শপথ নিতে হবে।

—————————————————————-

সূত্র

শিরোনামঃ  বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজনে ব্যর্থ হলো বাংলাদেশ

সামহোয়্যার ইন ব্লগ থেকে…  এখানে লিঙ্ক

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০০০ সাল, দুপুর ২টা। ১৩ বছরের এক বালক টিভির সামনে বসে আছে। টিভিতে সিডনি অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচারিত হচ্ছে। সে ঠিক বুঝে উঠতে পারছে না টিভিতে কি দেখাচ্ছে। তবুও দেখছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এর মনোমুগ্ধকর প্রদর্শণ দেখে সে মুগ্ধ। অস্ট্রেলিয়ার ইতিহাস, সংস্কৃতি আর আদিবাসী সম্পর্কেও জানল। তার কল্পনায় ভেসে উঠল তার দেশেও একদিন এমন কিছু হবে। তখন সারা বিশ্বও তার দেশকে চিনবে। ১৩ বছরের সেই বালক হলাম আমি; আজ ২৩ বছরের তরুণ। আজ আমি আমার কল্পনার খুব কাছাকাছি। বাংলাদেশে হতে যাচ্ছে ২০১১ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ আর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটাও এখানে হবে।

হঠাৎ থমকে গেলাম। আজ আমাদের সময় পত্রিকায় প্রকাশিত একটি খবর দেখে শিহরিত হই। বিশ্বকাপ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজনের দায়িত্ব নাকি পাচ্ছে ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠান। আর অনুষ্ঠান পরিকল্পনাও নাকি ওদের ইচ্ছেমতো হচ্ছে। ওদের ইচ্ছের এই প্রতিফলন ঘটবে আমাদের দেশের মাটিতে, ষ্টেডিয়াম-এ। নামেমাত্র দায়িত্ব পাচ্ছে এটিএন ইভেন্টস।

প্রতিটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এ থাকে আয়োজক দেশের নিজেকে তুলে ধরার প্রাণান্ত প্রচেষ্টা। নিজের কৃষ্টি, ইতিহাস আর সংস্কৃতি কে তুলে ধরার এটাই সম্ভবত সর্বোত্তম মাধ্যম। আর এক্ষেত্রে যৌথ আয়োজক থাকলে প্রাধাণ্য পায় সেই দেশ যেখানেই তা অনুষ্ঠিত হয়।যেমন টা আমরা দেখেছি কোরিয়া-জাপান ফুটবল বিশ্বকাপ ২০০২ এ। এমন অভাগা আমার দেশ, আমরা, যারা এমন সুযোগ পাওয়া সত্বেও তা অন্যের হাতে তুলে দিচ্ছি। ছি দেব, না থুতু মারব আমাদের?

এমন যদি হত আমরা এমন আয়োজন করতে পারতাম না তাহলে অন্য কথা। কই আমরা তো এস. এ. গেমস এর আয়োজন করেছি। বিশ্বমানের সফল সেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান যারা টিভিতে দেখেছেন তারা যেন নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে পারে নি যে এমন আয়োজন ও আমরা পারি। আর এস. এ. গেমস এর চেয়ে এই ক্রিকেট বিশ্বকাপের বাজেট নিশ্চয়ই আরো বেশি। নিজেদের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজন করতে না পারার কোনো কারণ নেই। তাহলে কেন এই সিদ্ধান্ত? কেন ভারতকে সুযোগ করে দিতে নিজেদের বিকিয়ে দেয়া, সম্মানহানী করা?

ওতে নাকি, অমিতাভ বচ্চন, অভিষেক, ঐশ্বরিয়া, সালমান খান এরা আসবে।আমার ক্ষুদ্র জীবনে যত উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখেছি কোথাও দেখিনি নায়ক-নায়িকা আর ফিল্মষ্টারদের কদাকার নাচানাচি আর রঙ্গতামাশা (আই.পি.এল. ছাড়া)। সেখানে দেখেছি প্রস্ফুঠিত হয়ে উঠেছিল দেশাত্, সেখানে দেখেছি প্রস্ফুঠিত হয়ে উঠেছে দেশাত্মবোধ, উদ্ভাসিত হয়েছে বিশ্বজনীন চেতনা; যা অনুষ্ঠিত হয়েছে সাধারণ, শৃঙ্খলিত কতক স্বেছাসেবী দ্বারা, নিষ্পাপ শিশুদের সমবেত পরিবেষণার দ্বারা। দু-চারজন সেলিব্রিটির চকচকে মুখ না দেখিয়ে দেখান হয়েছে সম্মিলিত প্রাণোচ্ছ্বাসের জনজোয়ার। দুঃখের বিষয় আমাদের দেশে, আমাদের মাটির, আমাদের ষ্টেডিয়াম এ বসে আমাদের কেই দেখতে হবে ওইসব দৃশ্য আর বিশ্ববাসী আমাদেরকে, বাংলাদেশকে জানবে ভারতের একটি অঙ্গরাজ্য হিসেবে, দেখবে একটি রাষ্ট্রকে যারা ভারতের প্রতিনিধিত্ব করে।

জানিনা, বিসিবির কর্তাব্যক্তিরা কেন এটা করেছেন; জানিনা, বিসিবি সভাপতি কেন এটা করেছেন; জানিনা ১৩ বছরের একজন বালক তার দেশকে সম্মানিত দেখতে চায় অথচ তার দেশের গর্ধভ কর্তাব্যাক্তিরা তা চায় না। তবে একটা জিনিস জানি, আমার মত ২৩ বছরের তরুণদের কাছে তোমরা চিরদিন ঘৃণিত থাকবে, নিন্দিত থাকবে, হয়তোবা মীর জাফরের চেয়েও বেশি।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: